ফেইক আইডি


.

আজকাল ফেসবুকে মেয়েদের ছবি দিয়ে বেশকিছু ফেক আইডি দেখা যায় , মেয়েদের ছবি দিয়ে এই আইডিগুলো যারা চালায় এরা বেশির ভাগই ছেলে। আমার বুঝে আসেনা এরা ছেলে হয়ে কেন মেয়ে পরিচয় দিয়ে আইডি চালাতে এতো গর্ববোধ করে! এ ধরনের প্রতারনারই বা কি মানে আছে, কিবা মজা পায় ওরা? নিজের পরিচয় ও পুরুষত্ব লুকিয়ে রাখার মধ্যে কি বা আত্নতৃপ্তি।

আবার কিছু মানুষকে দেখা যায় সুন্দরীদের ছবি দেয়া এসব ফেক আইডি দেখামাত্রই ফ্রেন্ড রিকুয়েষ্ট দিয়ে দেয় বা নিয়ে নেয়। এমন অনেক পরিচিত ও সমাজে প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তিদের তালিকায়ও এমন মেয়েদের ছবিওয়ালা ফেক আইডি দেখা যায়। তাদের উচিৎ যাচাই বাচাই করে এসব লিষ্টে রাখা। কেউ নিজেদের ফ্রেন্ড লিষ্ট লম্বা করার জন্য এমন করেন বোধ হয়।

খুব খারাপ লাগে তখন, যখন দেখি কোন ভদ্রঘরের মেয়েদের আইডি থেকে ছবি নিয়ে ওই ছবি দিয়ে এসব ফেক আইডি চালাচ্ছে। আরো কষ্ট পাই যখন দেখি এসব ভূয়া আইডি থেকে অনেকে ধর্মীয় লেখালেখি বা ইসলামের প্রচার চালাচ্ছে। তারা বোধহয় জানে না ইসলাম এসব পতারনা বা মিথ্যার আশ্রয় নেয়াকে সমর্থন করে না। আর যার আইডি'র শুরুটাই মিথ্যা ও ভূয়া মেয়েদের ছবি দিয়ে যাত্রা, সে যদি ধর্ম ও ইসলামের কথা বলে তা হবে যেমনি পতারনা তেমনি ইসলামের জন্য অবমাননাকর।