ইফতারেও বাঁধা?!


.

আমি গতকাল ঢাকা থেকে বরাবরের ন্যায় খাগড়াছড়ি আসলাম। একটি ইফতার মাহফিলে অংশগ্রহন করেছি। কিন্তু জেলায় পৌছানোর সাথে সাথেই গতকাল থেকে আজ পর্যন্ত জেলার প্রশাসন আমাকে বার বার ধাক্কা দিচ্ছে। অর্থাৎ আমাকে বলা হচ্ছে আমি যেন আমার নিজ জেলায়, আমার বাড়িতে না থাকি; এবং জেলা ছেড়ে চলে যাই। এভাবে গত সাত বছর ধরেই খাগড়াছড়ির প্রশাসন আমার সাথে একই আচরণ করে আসছে।

আজ আমাদের দলীয় অফিসে একটি ইফতার মাহফিল ছিল। কিন্তু আমাদের দলের অফিস ও ইফতার মাহফিলে না যাওয়ার জন্য প্রশাসন আমাকে অনুরোধ করে। অর্থাৎ অনুরোধ না মানলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে, এটা হলো অনুরোধের অনুবাদ।

অতি বৃষ্টিতে এই জেলা সদরের মুসলিম পাড়া, গঞ্জপাড়া, শান্তি নগর ও দিঘীনালা উপজেলার মেরুং এলাকায় পানি উঠে মানুষের ঘরবাড়ি প্লাবিত হয়ে গেছে। আমি এই জেলার একজন রাজনৈতিক ব্যক্তি, সাবেক সংসদ সদস্য এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান হিসেবে প্লাবিত এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়াতে চাইলে প্রশাসন আমাকে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় যেতে দেয়নি।

আমাকে আমার বাড়িতে থাকতে দিচ্ছে না। এ কোন দেশে বাস করছি? কিভাবে থাকবো এই দেশে? এই সরকার দেশের একজন নাগরিককে তার ঘরে, তার জেলায়, তার দলীয় অফিসে যেতে ও থাকতে দিবে না! এ কেমন সরকার ও রাষ্ট্র?