বিএনপি'র হাতেই হবে সরকার পতন


.

যেকোন খেলায় যেমন হার-জিত আছে, তেমনি আন্দোলনেও হার-জিত থাকে। এটাকে ব্যর্থতা বলে না। যদি ওই খেলার রেফারি আয়োজক দলের পক্ষে থাকে, তবে সে হারাকে তো ব্যর্থতা বলাই যায় না। আর খেলোয়াড়রা যদি খেলতে গেলেই রেফারি হলুদ কার্ড বা লাল কার্ড দেখিয়ে দেয়, তখন কোন ভাল খেলোয়াড়েরও আর রিস্ক নেয়ার সুযোগ থাকে না। এটাকে খেলোয়াড় বা নেতাদের ব্যর্থতা বলা যাবে না, মিয়া ভাই। আর আন্দোলন মানে সাথে সাথে সরকারের পতন নয়! মনে রাখবেন আওয়ামীলীগ ৯১ ও ২০০১-এ বিএনপি সরকার পতনের আন্দোলন করেছিল, কিন্তু বিএনপি'র পতন করতে পারে নাই। বিএনপি সরকার বহাল ছিল। স্বাভাবিক নিয়মে নিরপেক্ষ নির্দলীয় তত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হয়েছে, সরকারের পরিবর্তন হয়েছিল।

ঠিক তেমনি স্বৈরাচার এরশাদ সরকারের বিরোধিতা করে তার পতনের জন্য আওয়ামীলীগ, বিএনপি, জামায়াত ও বাম দলগুলোসহ দেশের সকল ছাত্র, যুবক, শ্রমিক, মহিলা সংগঠনসহ আমজনতা এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে শরিক হয়ে জীবন দিয়েছে। কিন্তু এরশাদের কোন সংগঠনও ছিল না, জনসমর্থনও ছিল না, তারপরও এরশাদকে হটাতে অনেক ত্যাগ-তিতিক্ষা স্বীকার করতে হয়েছিল। অনেক বড় বড় নেতা এরশাদের সাথে আঁতাত করে এবং তার দলে ও মন্ত্রীসভায় যোগ দিয়েও এরশাদের পতন ঠেকাতে পারে নাই। নয় বছর সময় লেগেছিল, কেউ আশা করেনি এরশাদের পতনে এতো সময় লাগবে! কিন্তু লেগেছিল! কেউই তার সাথে ছিল না। শুধু ঠোলা বাহিনীগুলো দিয়েই এরশাদ ৯ বছর অবৈধভাবে ক্ষমতায় ছিল।
যারা সব সময় বলেই আসছেন বিএনপি কোন দলই না। দেশে বিএনপি কোন গুরুত্ব বহন করে না। বিএনপি'র কোন জনসমর্থন নাই, এটি একটি খারাপ রাজনৈতিক দল, ইত্যাদি। টেলিভিশন টকশোতে গেলেই দেখি সে দালালরাই তাদের প্রতিটি নিঃশ্বাসে কম করে দশবার বিএনপির নাম উচ্চারণ করে। প্রশ্ন হলো, যদি বিএনপি এতোই খারাপ ও গুরুত্বহীন হয়ে থাকে, তবে সারাক্ষন বিএনপি বিরোধী এত কথা কেন?
এই আওয়ামী লীগ তো অনেক বড়, পুরানো, কর্মী-সমর্থক ও সুশীল দালালবান্ধব একটি দল। এদের গলার আওয়াজ ও পেশিশক্তি আপনার থেকে অনেক বেশি। এবং এরা প্রায় কিনে নিয়েছে, শুধুমাত্র সেবা দিয়ে যাচ্ছে দেশের সকল বাহিনী ও প্রশাসনকে। দুদক, কোর্ট, নির্বাচন কমিশন, মানবাধিকার সংগঠন, সকল মিডিয়া, দেশের ব্যবসায়ী ও পেশাজীবীদেরকে জিম্মি করে রেখেছে এই সরকার! এরপরেও আপনি কেন এত অস্থির যে, এক্ষুনি আওয়ামী সরকারকে হটাতে না পারলে বিএনপিকে ব্যর্থতার আসনে বসিয়ে দিতে হবে? তা ঠিক নয়। আন্দোলনের চরিত্রই এমন, আন্দোলনরত দল আগে যাবে, আবার পেছনে যাবে। শক্তি সঞ্চয় করে আবার সামনে যাবে, হারবে, হারবে এবং হারবে। এরপর একদিন বিজয় হাতের মুঠোয় আসবে ইনশাআল্লাহ্‌। এমনি করেই এই অবৈধ সরকার বিদায় নিবে। সে বিদায় যেকোনো দিন যেকোনো ভাবেই হতে পারে, হতাশ হবার কিছু নাই। যারা অস্থির ও অসুস্থ তারাই হতাশ হবে। আপনি নয়, আপনি আমার মত আশাবাদী হউন। ইনশাআল্লাহ্‌ বিএনপির হাতেই এই সরকারের পতন হবে।

Your Reply

আমার সম্পর্কে আরও জানতে চাইলে,
ক্লিক করুন WadudBhuiyan.Com